মনোয়ার হোসেন ডিপজল এর জীবন কাহিনী!

“ডিপজল” ডিপজল নামেই অধিক পরিচিত। ১৫ জুন ১৯৫৮ সালে মিরপুরে বাগানবাড়িতে তার জন্ম হয়। আর আরেক নাম বিশু। চলচ্চিত্র অভিনেতারর পাশাপাশি তিনি একজন প্রযোজক, রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী। ১৯৯২ সাল থেকে তিনি সরাসরি ভাবে চলচিত্রে যুক্ত আছেন। চলচ্চিত্র পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবরের হাত ধরে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটে তার। তিনি ফাহিম শুটিং স্পট, এশিয়া সিনেমা হল, পর্বত সিনেমা হল, জোবেদা ফিল্মস, পর্বত পিকচার্স-২, ডিপজল ফুড ইন্ডাস্ট্রিজের স্বত্বাধিকারী।তিনি বাংলাদেশের চলচিত্রে সক্রিয়। প্রথমে খল চরিত্রে অভিনয় করতেন তিনি পরবর্তীতে চাচ্চু চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি ভালো চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন।১৯৯৪ সালে তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের হয়ে। ঢাকা ৯ নম্বর ওয়ার্ড এর কমিশনার নির্বাচিত হন। তার বড় ভাই শাজাদাত হোসেন বাদশা তার নামে (ডিপজল পরিবহন) বাস সার্ভিস চালু করেন।

তার কিছু নিজস্ব প্রতিষ্ঠানও রয়েছে। সেগুলো হলোঃ ডিপজল ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ, ফাহিম শুটিং স্পট, এশিয়া সিনেমা হল, পর্বত সিনেমা হল, জোবেদা ফিল্মস, পর্বত পিকচার্স-২।

প্রথম চলচিত্রে প্রবেশঃ

ডিপজল ১৯৮৯ সালে “টাকার পাহাড়” চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আসেন। ডিপজলের বড় ভাই শাহাদাত হোসেন বাদশা যিনি বাদশা ভাই নামে পরিচিত তিনি সান পিকচার্স এর ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেন। পরিচালনা করেন মনতাজুর রহমান আকবর।আকবরেরও এটি পরিচালিতো প্রথম ছবি। কিন্তু ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৩ সালে।

তিনি এখন পর্যন্ত ২৫টির মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন। চাচ্চু, কোটি টাকার কাবিন, দাদীমা, মানিক রতন দুই ভাই সিনেমায় অসাধারণ অভিনয় করেছেন। তিনি এক বছরে এক সাথে ৩/৪ টি সিনেমাতেও অভিনয় করে গেছেন। তার নিরলস পরিশ্রমের কারনেই তিনি আজ বাংলা চলচিত্রের একজন অন্যতম প্রধান মুখ।

Leave a Reply